Recent Comments

    ব্রেকিং নিউজ

    চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আজ সকালে বমি করেছেন,কিছুই খেতে পারছেন না:মির্জা ফখরুল || রাজধানী ঢাকার কোনো রুটেই সু-প্রভাত বাস চলবে না: মেয়র আতিকুল ইসলাম || আবরার আহাম্মেদকে চাপা দেয়া বাসটির রেজিস্ট্রেশন বাতিল করেছে বিআরটিএ || নিউজিল্যান্ডের মুসল্লিদের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর প্রথম সংসদীয় অধিবেশন শুরু করা হয়েছে পবিত্র কোরআন তিলাওয়াতের মাধ্যমে। || দক্ষিণ আফ্রিকায় জাকের হোসেন নামের এক বাংলাদেশিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা || কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আবেদন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন সাবেক ছাএ নেতা সামসুল আলম || বিএনপি থেকে পদত্যাগ করে চেয়ারম্যান পদে ফিরোজ হায়দার || সিমেন্টের বদলে বালি আর রডের বদলে বাঁশ দিবেন না: গ্র্যাজুয়েটদের উদ্দেশে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ || তাঁতী দলের উদ্যোগে আব্দুল আলী মৃধার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া মাহফিল ও স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠিত হবে || অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করা হয়েছে কিনা জানতে চেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ||

    এমপি আমুর নির্দেশে জিকে মোস্তাফিজ’র প্রার্থীতা প্রত্যাহার

    March 8, 2019

    নলছিটি উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন শুরুতেই শেষ

    আজমীর হোসেন তালুকদার, ঝালকাঠি: ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার চেয়ারম্যান পদে আ’লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এড. জিকে মোস্তাফিজুর রহমান নির্বাচনের মাঠ থেকে হঠাৎ সরে দাড়ানো নিয়ে উপজেলা জুড়ে সর্বস্তরের মানুষ মাঝে নানা আলোচনা-সমালোচনা বিরাজ করছে। ছাত্রলীগের রাজনীতি দিয়ে শুরু করে জেলা আ’লীগের সহসভাপতি এ নেতা ক্ষমতাশীন মহলের কাছে কোনঠাসা হলেও ষ্পষ্ট ভাষী হিসাবে নলছিটিতে ব্যাপক জনপ্রিয় নেতা জিকে মোস্তাফিজ তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করতে গিয়ে সমর্থকদের রোষাণলে পড়েন। বিপুল জনপ্রিয়তা সত্তে¡ও ঝালকাঠি-২ আসনের সংসদ সদস্য, সাবেক শিল্পমন্ত্রী ও আওয়ামীলীগের জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা আমির হোসেন আমু প্রতিদ্বন্দিতা থেকে সরে যেতে নির্দেশ দেয়ায় তিনি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জেলা ও উপজেলা আ’লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা জানায়। যে কারনে নলছিটি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের আমেজ শুরুতেই শেষ হয়ে গেছে।
    জানাগেছে,৭ফেব্রæয়ারী বৃহস্পতিবার বিকাল ৩ টায় ঝালকাঠির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাচনের জেলা রিটার্নিং অফিসার এসএম ফরিদ উদ্দিনের কাছে নলছিটি উপজেলার চেয়ারম্যান পদে উপজেলা চেয়ারম্যান এড. জিকে মোস্তাফিজুর রহমান তার প্রার্থীতা প্রত্যাহারের আবেদন করেন। এরআগে এড. জিকে মোস্তাফিজুর রহমানের প্রার্থীতা প্রত্যাহারের খবর ছড়িয়ে পড়লে নলছিটি উপজেলা আ’লীগের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী সকাল ১০ টা থেকে ঝালকাঠি আইনজীবী সমিতি ভবনের চেম্বার কক্ষে তাকে অবরুদ্ধ করে রাখে এবং তার লেখা প্রত্যাহারের আবেদন সমর্থকরা ছিনিয়ে নিয়ে ছিড়ে ফেলে।
    পরবর্তিতে দুপুর আড়াইটায় তিনি সমর্থকদের সাথে নিয়ে জেলা রিটার্নিং অফিসারের কক্ষে উপস্থিত হয়ে তার সম্মুখে বসে প্রত্যাহারের আবেদন লিখে স্বাক্ষর করে জমা দিলে জেলা রিটার্নিং অফিসার এসএম ফরিদ উদ্দিন আবেদন পত্রটি গ্রহন করেন। কর্মী-সমর্থকরা প্রকাশ্যে অভিযোগ করেন, এমপির আত্মীয়কে দলীয় মনোনয়ন ও প্রতিক দেয়ার সত্বেও ভোটে না জেতার আশংকায় তাকে বিনা ভোটে বিজয় করতে একমাত্র প্রতিদ্বন্দি প্রার্থীকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।
    এ ব্যাপারে এড. জিকে মোস্তাফিজুর রহমান জানায়, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সরদার মোঃ শাহ আলম, সাধারন সম্পাদক এড. আলহাজ্ব খান সাইফুল্লাহ পনির, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি পিপি এড. আব্দুল মান্নান রসুল জেলা আইনজীবী সমিতি ভবনে তার চেম্বার কক্ষে উপস্থিত হয়ে প্রার্থীতা প্রত্যাহারের জন্য তাকে অনুরোধ করেন। ইতিপূর্বে আ’লীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা সাবেক শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এমপি আমাকে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দিতা না করার জন্য দু’বার ফোন করায় আমি তার কথায় মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছি।
    দুক্ষ-ভারাক্রান্ত মনে এড. জিকে মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সারা বাংলাদেশে বিশেষ নজরদারিতে যদি ২টি উপজেলার নির্বাচন হয় তার মধ্যে নলছিটি উপজেলা রেখে ভোট গ্রহন করা হলে তাতেও আমি শতকরা আশি ভাগ ভোটে নির্বাচিত হতাম। আসলে বড় বটগাছের নীচে কোন ছোট গাছ হয় না, তাই আমিও একই পরিস্থিতির শিকার হলাম। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমাদের বংশে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের বাইরে কোন লোক নেই। আওয়ামীলীগ করতে আমার পদ পদবীর কোন দরকার নেই।
    জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও পিপি অ্যাডভোকেট আব্দুল মান্নান রসুল জানান, আমাদের রাজনৈতিক অভিভাবক সাবেক শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু নৌকা প্রতিকের বিদ্রোহী প্রার্থীদের নির্বাচন থেকে সরে যেতে বলেছেন। মোস্তাফিজ ভাই তার প্রতি সম্মান জানিয়ে কথা রেখেছেন। এর চেয়ে চাওয়া পাওয়ার আর কিছু নেই।
    জেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক এড. আলহাজ্ব খান সাইফুল্লাহ পনির বলেন, জেলার ৪টি উপজেলায় আ’লীগের রাজনীতিতে যুক্ত বিদ্রোহী প্রার্থীদের প্রতি আমাদের অনুরোধ ছিলো যে তাদের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে দলের মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থীকে জয়ী করতে সমর্থন দেয়ার। যারা আমাদের অনুরোধ রেখে তাঁদের আমরা স্বাগত জানাই।
    উল্লেখ্য, নলছিটি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আ’লীগের মনোনীত প্রার্থী হিসাবে জেলা আ’লীগের সহসভাপতি সিদ্দিকুর রহমান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে জেলা আ’লীগের সহসভাপতি, জেলা আওয়ামী আইনজীবী পরিষদ সাধারন সম্পাদক এড. জিকে মোস্তাফিজুর রহমান প্রতিদ্বন্দিতা করছিলেন। তিনি মনোনয়ন প্রত্যাহার করায় আ’লীগের মনোনীত প্রার্থী জেলা আ’লীগের সহসভাপতি সিদ্দিকুর রহমান একপ্রকার বিনা প্রতিদ্বন্দিতা নলছিটি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নির্বাচিত হতে আর কোন বাধা রইলো না।#

    Print Friendly, PDF & Email
    • 7
      Shares