Recent Comments

    ব্রেকিং নিউজ

    এমপি পদে থাকার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা রিট আবেদন সরাসরি খারিজ করে দিয়েছেন হাইকোর্ট || ফকিরাপুলে ডাস্টবিন থেকে ‘মেইড ইন পাকিস্তান’ লেখা ৫৫ রাউন্ড গুলি ও একটি গ্রেনেড উদ্ধার || দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত ডাকসু নির্বাচনের মনোনয়ন ফরম না কেনার সিদ্ধান্ত ছাত্রদলের || সংরক্ষিত নারী আসনের ৪৯ সংসদ সদস্যের প্রজ্ঞাপন প্রকাশ করেছে নির্বাচন কমিশন || ঠাকুরগাঁওয়ের ঘটনা অনাকাঙ্ক্ষিত : বিজিবি মহাপরিচালক ||  আগামী উপজেলা নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে না: রুহুল কবির রিজভী || ভারত ও বাংলাদেশের সম্পর্কক‘স্বামী-স্ত্রীর মতো’ :ররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন || বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান এর অভিনন্দন বার্তা || বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এর বিবৃতি || হবিগঞ্জে বিএনপি নেতা জিকে গউছসহ ১৪ জন জেলে ||

    ঝালকাঠিতে কলেজ ছাত্রীর খুনীদের দ্রæতো গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে সহপাঠী-শিক্ষকদের মানববন্ধন

    February 8, 2019

    =সন্দেহের তীর ফেসবুক প্রেমিক সোহাগের দিকে=>

    আজমীর হোসেন তালুকদার, ঝালকাঠি: ঝালকাঠি সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী বেনজির জাহান মুক্তার (১৯) হত্যাকারীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করছে তার সহপাঠী, শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা। বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় শহরের সরকারি মহিলা কলেজের সামনের সড়কে তাঁরা এ কর্মসূচি পালন করেছে। অন্যদিকে সরকারি মহিলা কলেজের বিএ প্রথম বর্ষের পরীক্ষার্থী মুক্তা হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার নামধারী প্রধান আসামী পটুয়াখালি জেলার কলাপড়া উপজেলার সোহাগ নামের ফেসবুকে পরিচয়ের সূত্র প্রেমিক সোহাগ নামের এক অজ্ঞাত যুবককে গ্রেপ্তারের নলছিটি থানা পুলিশ জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে বলে পুলিশ সূত্রে জানাগেছে।
    মানববন্ধন ও সমাবেশ চলাকালে বক্তব্য রাখেন কলেজ অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. জাহাঙ্গীর খান, উপাধ্যক্ষ সৈয়দ আলী আযম, সহকারী অধ্যাপক ডক্টর মো. শামীম আহমেদ ও কামরুল ইসলাম, প্রভাষক সুরাইয়া পারভিন, শিক্ষার্থী রাশনিয়া তালুকদার, নুসরাত জাহান প্রমুখ। সকল বক্তরা নৃশংস এ ঘটনার জড়ীত খুনীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক বিচার ও পথেঘাটে শিক্ষার্থী মেয়েদের নিরাপদ-নির্বিগ্ন পরিবেশ নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে জোর দাবি জানান।
    কর্মসূচী চলাকালে আলাপকালে নিহত মুক্তার সহপাঠী ঝালকাঠি সরকারি মহিলা কলেজের বিএ প্রথম বর্ষের ছাত্রী কলি আক্তার বলেন, মুক্তা খুব ভাল ছিল, কলেজের সহপাটি সবার সঙ্গে মিলেমিশে থাকতো বলে আমাদের সঙ্গে কখনো মুক্তার মনমালিন্য হয়নি। মুক্তার হত্যাকারীদের দ্রæতোতম সময়ের মধ্যে গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে না পারলে সাধারন মেয়েদের শিক্ষা গ্রহন বিগ্নিত হবে ও আশংকার সৃষ্টি করবে।
    এবিষয়ে কলেজের অধ্যক্ষ মো. জাহাঙ্গীর খানের সাথে আলাপকালে বলেন, বাবা একজন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক হওয়ায় শিক্ষার্থী মুক্তা নিয়মিত নদী পার হয়ে কলেজে আসতো। দিন দুপুরে এভাবে একটি মেয়েকে প্রকাশ্য রাস্তায় নৃশংস ভাবে যারা হত্যা করে গেল, পুলিশ এখনো তাদের কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারলো না সেটাই বিস্ময়কর। তবে তাকে যারা কুপিয়ে হত্যা করেছে, তাদের অবশ্যই চিহ্নিত করে গ্রেপ্তার ও কঠোর বিচার করা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও প্রশাসনের একান্ত দায়িত্ব ।
    তাছাড়া এঘটনার বিষয়ে বারইকরণ গ্রামের বাসিন্দা ইউপি সদস্য নিখিল চন্দ্র দাস বলেন, মুক্তার হত্যাকারী যুবকটি মোটরসাইকেল নিয়ে বারইকরণ গ্রামে এসেছিল বলে শুনেছি। মুক্তাকে খুন করার জন্য সে ধারালো অস্ত্র নিয়ে এসেছিল বলে এলাকার লোকজন ধারণা। যে কারনে পরিকল্পিতভাবে মুক্তাকে হত্যা করে সে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ধাড়ালো অস্ত্র নিয়েই সে পালিয়ে গেছে বলে সন্দেহ করছে।
    অন্যদিকে নলছিটি থানার ওসি মো. শাখাওয়াত হোসেন জানান, কলেজ ছাত্রী মুক্তাকে হত্যার ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে তার বাবা অবসরপ্রাপ্ত স্কুল শিক্ষক জাহাঙ্গীর হাওলাদার বাদী হয়ে কথিত প্রেমিক সোহাগসহ অজ্ঞাত আরো দুই-তিন জনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। নলছিটি থানায় মামলাটি নথিভূক্ত করার পর অপরাধীদের দ্রæতো গ্রেফতারের পর আইনের আওতায় আনার জন্য পুলিশ সর্বচ্চো প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে।
    এ বিষয়ে নলছিটি থানার ওসি (তদন্ত) আবদুল হালিম তালুকদার বলেন, আমরা প্রযুক্তির মাধ্যমে অভিযুক্তকে সনাক্ত করার জন্য জোড় চেষ্টা করছি। পরিবারের অভিযোগ অনুযায়ী হত্যাকান্ডের আগে সোহাগ নামে যে যুবক ফোনে মেয়েটির সঙ্গে কথা বলেছিল তাঁর অবস্থান সনাক্ত করা চেষ্টা চলছে। তাকে চিহ্নিত করা মাত্রই হত্যাকারীকে দ্রæতো গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশ অভিযান চালাবে। তাই পুলিশ সোহাগের অবস্থান জানা ও পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার জন্য বিভিন্ন স্থানে খোঁজখবর অব্যাহত আছে।
    এদিকে নৃশংস এ ঘটনার ৩দিন অতিবাহিত হলেও কলেজ ছাত্রী নিহত মুক্তার মা তাসলিমা বেগম, বড় বোন রিফাত জাহান ও অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক পিতা জাহাঙ্গির হোসেন সহ আত্মীয় স্বজনের কান্না- আর্তনাদে এলাকার আকাশ-বাতাস ভারি হয়ে আছে। তাদের দাবী, কলাপাড়ার সোহাগ নামে যে যুবকের সঙ্গে কথা বলতো কিছুদিন পূর্বে তাদের সম্পর্ক ভেঙে যায়। তার উপর ঘটনার দিন উক্ত সোহাগ নামে এক যুবক তাকে ফোন করে বাড়ি থেকে সামনে বের হতে বলেছিল। প্রতিশোধ নিতে সে মুক্তাকে গলায় ধারালো অস্ত্রদিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে। তাকে পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারলে হত্যাকান্ডের প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

    Print Friendly, PDF & Email