Recent Comments

    ব্রেকিং নিউজ

    নুসরাত হত্যার ঘটনায় অন্যতম আসামি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রুহুল আমিন আটক || কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবীতে রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে উত্তর স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ মিছিল || খালেদা জিয়া প্যারোলে মুক্তি নিয়ে সরকারপন্থি কয়েকটি মিডিয়া প্রতিদিন মনগড়া প্রোপাগান্ডা চালিয়ে যাচ্ছে:রিজভী আহম্মেদ || সংসদ নির্বাচনে বিএনপি থেকে নির্বাচিত ৬ জন শপথ নেবে না:বিএনপি || খালেদা জিয়ার জামিনে সরকারের কোন হস্তক্ষেপ নেই,বিচার ব্যবস্থা সম্পূর্ণ স্বাধীন:মন্ত্রী আনিসুল হক || ‘খালেদা জিয়া-তৃতীয় বিশ্বের কণ্ঠস্বর’ শীর্ষক বইটির মোড়ক উন্মোচন || নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের দায়িত্বে অবহেলার প্রমাণ মিলেছে:পুলিশ সদর দফতর || গণতন্ত্রে অবিশ্বাসীরাই ভোটের উৎসবকে কলুষিত করতে চায় || ২০৬ মামলার আসামি মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবীব-উন নবী খান সোহেলের মুক্তি কতদূর? || খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে রিজভীর নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল ||

    নড়াইলের এসপি দ্বিতীয়বার রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক পিপিএম, পায়ায় জেলা অনলাইন মিডিয়া ক্লাবের অভিনন্দন

    February 9, 2019

    উজ্জ্বল রায়, নড়াইল জেলা প্রতিনিধি■ আজ শনিবার (৯,ফ্রেব্রুয়ারী) নড়াইলের এসপি দ্বিতীয়বারের মতো‘রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক পিপিএম, পায়ায় অভিনন্দন জানিয়েছে জেলা অনলাইন মিডিয়া ক্লাবের সভাপতি ও সম্পাদক বিবরিত প্রদান করেছে, নড়াইল জেলা অনলাইন মিডিয়া ক্লাবের সভাপতি উজ্জ্বল রায়, সাধারণ সম্পাদক মোঃ হিমেল মোল্যা, আরো উপস্থিত ছিলেন নড়াইল, দৈানিক বিডি খবর’র সম্পাদক ও প্রকাসক লিটন,দত, সাংগঠনিক সম্পাদক আকতার মোল্যা (বাগডাঙ্গা), বুলু দাস, নড়াইল জেলা অনলাইন মিডিয়া ক্লাবের সকল সদস্যবৃন্দ। অসীম সাহসিকতা, বীরত্বপ‚র্ণ অবদান এবং সেবাম‚লক কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ দ্বিতীয়বারের মতো ‘রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক’-সেবা (পিপিএম) পেয়েছেন নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন। রাজারবাগে পুলিশ সপ্তাহের অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ পদক তুলে দেন। এর আগে গত ২৯ জানুয়ারি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পুলিশ শাখা-২ এর উপসচিব ফারজানা জেসমিন স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনে নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিনসহ ৩৪৯ পুলিশ কর্মকর্তাকে বিপিএম ও পিপিএম পদকের জন্য মনোনীত করা হয়। সংশ্লিষ্ট স‚ত্রে জানা যায়, গুরুত্বপ‚র্ণ মামলার রহস্য উদঘাটন, অপরাধ নিয়ন্ত্রণ, দক্ষতা, কর্তব্যনিষ্ঠা, সততা ও শৃঙ্খলাম‚লক আচরণের মাধ্যমে প্রশংসনীয় কাজের অবদানের জন্য পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিনকে ‘পিপিএম-সেবা’র জন্য মনোনীত করা হয়েছে। এ ব্যাপারে নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন পিপিএম বলেন, ‘পদক পাওয়ার বিষয়টি আনন্দের। পেশাগত জীবনে এ ধরণের ম‚ল্যায়ন আরো দায়িত্ব ও নিষ্ঠাবান করে তোলে। উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা যোগায়।’ তিনি আরো বলেন, জঙ্গীবাদ, মাদক, ইভটিজিং ও সন্ত্রাসীরা সমাজ তথা দেশ ও জাতির শত্রু। এদের নির্ম‚লে কাজ করে যেতে চাই। মানুষের ভালোবাসা ও শ্রদ্ধায় এগিয়ে যেতে চাই। মানুষের জন্য কাজ করতে পারাটা আমার জন্য সম্মানজনক। নড়াইলবাসীর সঙ্গে নিষ্ঠা ও আন্তরিক ভাবে কাজ করে যেতে চাই। এর আগে বিদেশিদের নিছিদ্র-নিরাপত্তা দেয়ায় ডিএমপির ডিপলোমেটিক সিকিউরিটি বিভাগের তৎকালীন ডিসি হিসেবে পুলিশ কর্মকর্তা মোহাম্মদ জসিম উদ্দিনকে ‘রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক’ (পিপিএম) প্রদান করা হয়। ২০১৭ সালের ২৩ জানুয়ারি রাজারবাগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে এ পদক গ্রহণ করেন তিনি। গুলশানের হলি আর্টিসান রেস্তোরাঁয় জঙ্গি হামলার আগে ও পরে ক‚টনীতিকদের নিরাপত্তা বিষয়ে বিশেষ ভ‚মিকা পালন করেন এই পুলিশ কর্মকর্তা। এদিকে ২০১৮ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি নড়াইলের পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদানের পর থেকে মাদক ও জঙ্গি নির্ম‚লে কাজ করার পাশাপাশি বিভিন্ন এলাকায় শান্তি প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে ব্যাপক ভ‚মিকা রেখেছেন মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন। যার মধ্যে অন্যতম-নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার আমাদা, পারমলি­কপুর, সরুশুনা, বাড়িভাঙ্গা খাল, লাহুড়িয়া, কোটাকোল, কালিয়া উপজেলার কলাবাড়িয়া, যাদবপুর, রঘুনাথপুর, সদরের চৌগাছা, হোগলাডাঙ্গার বিরোধ মীমাংসাসহ জেলার বিভিন্ন অঞ্চলের ১২৯টি বিরোধ মীমাংসা করেছেন তিনি (জসিম উদ্দিন)। জানা যায়, ফেনী সদর উপজেলার শর্শদী ইউনিয়নের মধ্যম জাহানপুর গ্রামের মোহাম্মদ মফিজ উদ্দিনের ছেলে মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন ২০০৫ সালে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেন। ২০১৬ সালের ৪ এপ্রিল পুলিশ সুপার (এসপি) পদে পদোন্নতি লাভ করেন মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সমাজবিজ্ঞানে অনার্স ও মাস্টার্স শেষে ২০০৫ সালে ২৪তম বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে যোগদান করেন পুলিশ ক্যাডারে। দেশে ও বিদেশে প্রশিক্ষিত সুদীপ্ত কর্মময় জীবনের অধিকারী জসিম উদ্দিন ২০১০ সালে হাইতিতে জাতিসংঘ মিশনে অংশ নিয়ে নিজ অবদানের জন্য অর্জন করেন ‘জাতিসংঘ শান্তি মিশন পদক’। পারিবারিক জীবনে তার স্ত্রী নাহিদা আক্তার চৌধুরী সুমি ঢাকার সিটি ইউনিভার্সিটির ম্যানেজমেন্ট বিষয়ের সাবেক শিক্ষক। ছেলে ফাইজুম সালেহীন সামির যশোর ইংলিশ স্কুলের দশম শ্রেণির এবং মেয়ে সামিহা মুবাশ্বিরা রোজ নড়াইল সরকারি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী।

    Print Friendly, PDF & Email