Recent Comments

    ব্রেকিং নিউজ

    চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আজ সকালে বমি করেছেন,কিছুই খেতে পারছেন না:মির্জা ফখরুল || রাজধানী ঢাকার কোনো রুটেই সু-প্রভাত বাস চলবে না: মেয়র আতিকুল ইসলাম || আবরার আহাম্মেদকে চাপা দেয়া বাসটির রেজিস্ট্রেশন বাতিল করেছে বিআরটিএ || নিউজিল্যান্ডের মুসল্লিদের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর প্রথম সংসদীয় অধিবেশন শুরু করা হয়েছে পবিত্র কোরআন তিলাওয়াতের মাধ্যমে। || দক্ষিণ আফ্রিকায় জাকের হোসেন নামের এক বাংলাদেশিকে শ্বাসরোধ করে হত্যা || কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আবেদন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছেন সাবেক ছাএ নেতা সামসুল আলম || বিএনপি থেকে পদত্যাগ করে চেয়ারম্যান পদে ফিরোজ হায়দার || সিমেন্টের বদলে বালি আর রডের বদলে বাঁশ দিবেন না: গ্র্যাজুয়েটদের উদ্দেশে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ || তাঁতী দলের উদ্যোগে আব্দুল আলী মৃধার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া মাহফিল ও স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠিত হবে || অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করা হয়েছে কিনা জানতে চেয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ||

    ফরিদগঞ্জ শহীদ মিনার প্রাঙ্গন থেকে কামার পট্টি সরানো দরকার

    March 9, 2019

    pnbd24:-সৌন্দর্য এবং নিরাপত্তার স্বার্থে ফরিদগঞ্জ শহীদ মিনার প্রাঙ্গন থেকে কামার পট্টি সরানো দরকার বলে মনে করছেন উপজেলার বিশিষ্টজনরা। দীর্ঘ সময় ধরে কামাররা এখানে অস্থায়ীভাবে দোকান সাজিয়ে বসছেন। হাফরের সাহায্যে কয়লায় লোহাকে পুড়িয়ে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে দা, চাকুসহ বিভিন্ন ধারালো দেশীয় অস্ত্র বানাচ্ছেন। তারও আগে এখানে নাপিতেরা পিড়ি পেতে হাটে আসা লোকজনের চুল এবং দাড়ি-গোঁফ কাটতো।
    উপজেলা পরিষদের ঠিক সামনেই ফরিদগঞ্জের প্রধান স্মৃতিসৌধ এবং শহীদ মিনারটি অবস্থিত। প্রতি বছর ফরিদগঞ্জ মুক্ত দিবস, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২৬ মার্চ এবং ১৬ ডিসেম্বর জাতীয় দিবস গুলোতে উপজেলাবাসী ভাষা শহীদ এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ হওয়া বীর মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে এখানে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। স্থানটির সৌন্দর্য বৃদ্ধি এবং সুরক্ষিত করতে উপজেলা প্রশাসন প্রশংসনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেছে এবং বাস্তবায়নও করেছেন। কিন্তু এ দু’টি স্থাপনার সামনে রাস্তার ফুটপাতে কামার এবং বস্ত্র ব্যবসায়ীরা দোকান সাজিয়ে এর সৌন্দর্য নষ্ট করছে।
    পাশাপাশি কামারদের দোকান শান্তি-শৃঙ্খলার বিঘœ ঘটানোর শঙ্কা সৃষ্টি করছে। উপজেলা পরিষদ অধিকাংশ প্রশাসনিক ডেস্ক হওয়াতে এখানে লোকজনের সমাগমও বেশি। তাছাড়া আগামী ২৪ মার্চ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। নির্বাচনের কেন্দ্রবিন্দুও উপজেলা পরিষদ। সাধারণ মানুষ এবং নেতা-কর্মীরা আশঙ্কা করছেন এবার উপজেলা পরিষদ নির্বাচন শান্তিপূর্ণ নাও হতে পারে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মারামারির ঘটনা ঘটলেও ঘটতে পারে। যদি মারামারি লেগেই যায় সে ক্ষেত্রে উপজেলা পরিষদের সামনে সাজিয়ে রাখা দেশীয় অস্ত্রগুলো রাগের মাথায় সাধারণ নেতা কর্মীরা ব্যবহার করতেও পারে। সে ক্ষেত্রে রক্তাক্ত ফরিদগঞ্জ দেখতে পারে উপজেলাবাসী। সে আশঙ্কা থেকে বাজার ব্যবসায়ীসহ সাধারণ মানুষের মনের চাওয়া এখান থেকে কামারদের উঠিয়ে পশ্চিম বাজার অথবা অন্য কোথায়ও বসার ব্যবস্থা করলে ভালো হয়। এ আশঙ্কা যে একেবারে উড়িয়ে দেওয়া যায় না তার প্রমাণ চলতি বছরের ১৫ জানুয়ারী। সেদিন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদ ঠিক করার জন্য উপজেলা আওয়ামীলীগ বর্ধিত সভার আয়োজন করে। এ সভাকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুফের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। আর এ সংঘর্ষে সেদিন রাস্তার পাশে সাজিয়ে রাখা সেই দেশীয় অস্ত্রগুলো ব্যবহার করা হয়েছে বলে ব্যবসায়ীরা দাবী করছেন। স্থানটি উপজেলা পরিষদের সামনে হওয়ায় রাজনৈতিক দলগুলো মিছিলের জন্য এ সড়কটিকেই ব্যবহার করে আসছেন।
    এব্যাপারে বাজার ব্যবসায়ী কমিটির আহ্বায়ক অহিদুল ইসলাম পাটোয়ারী সাংবাদিকদের বলেন,‘বাজার ব্যবসায়ীসহ সকল মানুষের নিরাপত্তার স্বার্থে এখান থেকে কামার পট্টি সরানো দরকার। জানুয়ারি মাসে আ’লীগের বর্ধিত সভাকে কেন্দ্র করে যে সংর্ঘষের ঘটনা ঘটেছে, সেখানে মিছিলকারিদের কেউ কেউ কামার পট্টি থেকে দা এবং ছুরি নিয়ে গেছে। সেদিন পুলিশের ভূমিকা না থাকলে অনেক প্রাণহানির ঘটনা ঘটতো। সামনে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। মিছিলকারীরা এ রাস্তাটি ব্যবহার করবে। বিপদ ঘটার আগে ব্যবস্থা নিতে হবে।’
    সহকারি কমিশনার (ভূমি) মমতা আফরিন চাঁদপুর কণ্ঠকে এ ব্যাপারে বলেন,‘বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ। এখান থেকে কামার পট্টি স্থান্তর করতে আমি উপজেলা নির্বাহী অফিসার স্যারের সাথে এবং পৌর মেয়র’র সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবো।’

    Print Friendly, PDF & Email