Recent Comments

    ব্রেকিং নিউজ

    বিমানবন্দর সড়কের বাতি জ্বলেনি:নেতাকর্মীরা মোবাইল ফোনের আলো জ্বালিয়ে খালেদা জিয়াকে স্বাগত জানান || রোহিঙ্গা সঙ্কটের দীর্ঘমেয়াদি সমাধানে কিছুটা সময় লাগবে:ইইউ ডেলিগেশন প্রধান রাষ্ট্রদূত রেনসিয়া তিরিঙ্ক || সিইসি’র ব্যাখ্যায় আওয়ামী লীগ সন্তুষ্ট:নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপ শেষে ওবায়দুল কাদের || নেতাকর্মীদের বিপুল সংবর্ধনায় সিক্ত হয়ে বাসায় ফিরেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া || আকস্মিকভাবে শিরোনামে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নূরুল হুদা || ‘চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে ‘প্রধান বিচারপতি ফিরে এসেই কাজে যোগ দিতে পারবেন’:দিল্লিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী || শেখ হাসিনাকে নির্বাচনকালীন সরকারের প্রধানের প্রস্তাবনা নিয়ে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে আজ সংলাপে বসছে আওয়ামী লীগ || দুই মাসের বেশি সময় লন্ডন অবস্থানের পর আজ দেশে ফিরছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া || খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা থাকলেই তাকে গ্রেপ্তার করা হবে এটা ঠিক নয়: আইজিপি একেএম শহীদুল হক || ডাকসুর বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে খোঁজ নিয়েছেন প্রেসিডেন্ট মো. আবদুল হামিদ ||

    শৈলকুপায় বৃদ্ধ পিতাকে চার ছেলেই মারধোর করে

    August 12, 2017

    জাহিদুর রহমান তারিক,ঝিনাইদহঃ-
    ঝিনাইদহ শৈলকুপার জামিরুদ্দিন শেখ, বয়স ১০১ বছর। অসুস্থতার সুযোগে ৫২ বিঘা সম্পত্তি জোর করে লিখে নিয়েছেন ছেলেরা। জমি থেকে একমাত্র বোনকেও করেছেন বঞ্চিত। কোন ছেলেই তাকে খেতে দেয়না বলে তিনি জানান। কথাগুলো বলছিলেন ঝিনাইদহ শৈলকুপার বিপ্রবগদিয়া গ্রামের মোঃ জামিরুদ্দিন শেখ। পরবর্তিতে নিজের জমি উদ্ধারের জন্য আদালতে মামলা করেন। এখন ১০১ বছর বয়সেও নিজের সম্পত্তি উদ্ধারের জন্য আদালতে ঘুরতে হচ্ছে তাকে। মামলার কারণে ছেলেদের অত্যাচার বেড়ে গেছে বলে জানান বৃদ্ধ জামিরুদ্দিন শেখ। তিনি বলেন, শুধু মেজ ছেলে ছাড়া আর সব ছেলেই একাধিকবার তার গায়ে হাত তুলে মেরেছেন। ডিসি স্যারের কাছে গিয়েছিলেন তার দুঃখের কথা জানাতে। ডিসি স্যার টেলিফোনে তাৎক্ষণিক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ দেন শৈলকুপার ইউএনওকে। গতকাল বৃদ্ধ জামিরুদ্দিন শেখ গিয়েছিলেন শৈলকুপা ইউএনও অফিসে। ইউএনও ইউএনও মহোদয় বলেন, বৃদ্ধ জামিরুদ্দিন শেখ যা বর্ণনা করেছেন, তা অত্যন্ত লজ্জাজনক ঘটনা। জামিরুদ্দিন শেখের বিষয়ে প্রয়োজনিয় ব্যাবস্থা নেয়া হবে। ইউএনও ভারাক্রান্ত হৃদয়ে আরো বলেন,মাত্র ৫২ বিঘা কেন! ৫২ হাজার বিঘা জমির চেয়েও বেশি মূল্যবান বাবা-মা এর মুখে হাসি ফোটানো। হতভাগা সন্তানেরা! বৃদ্ধ লোকটির বর্ণনা যতি সত্য হয়, তার ছেলেদেরও তাদের সন্তানদের হাতে মার খাওয়ার জন্য এখন থেকে মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকতে হবে। কারণ এটিই প্রকৃতির নিয়ম।

     

    Print Friendly, PDF & Email