Recent Comments

    ব্রেকিং নিউজ

    রাজনেতিক হস্তক্ষেপ হলে ২০১৮’র বিশ্বকাপে নিষিদ্ধ করা হবে স্পেনকে:ফিফা || লাখো মানুষের শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় সিক্ত হতে পুরোপুরি প্রস্তুত জাতীয় স্মৃতিসৌধ || রাজধানীসহ সারা দেশে বিএনপির প্রতিবাদ কর্মসূচি ১৮ ডিসেম্বর || আগামী বিজয় দিবস সরকারিভাবে বিএনপিই পালন করবে :বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা বাণীতে আহম্মেদ আলী মুকিব || ১৬ ডিসেম্বর আমদের গর্বিত এবং মহিমান্বিত বিজয় দিবস: বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া || ১৯৭১ সালের এদিনে আমরা প্রিয় মাতৃভূমিকে শত্রুমুক্ত করতে সক্ষম হই:বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম || চশমা হিলের পারিবারিক কবরস্থানে বাবার কবরের পাশেই শায়িত হলেন সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী || বুদ্ধিজীবী হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত অনেকের বিচার হয়েছে, অনেকে পালিয়ে আছে: ওবায়দুল কাদের || রাজধানীর মিরপুর বু‌দ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে ফুল দিয়ে জা‌তির শ্রেষ্ঠ সন্তানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া।  || শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট আবদুল হামিদ ||

    ঝালকাঠিতে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে স্ত্রীকে হত্যার পর বীষপানের প্রচারনার কথা স্বীকার করেছে স্বামী হিমু

    December 5, 2017

    বাবা মিলটন আকনের পরামর্শেই এই বিষপানের নাটক !

    আজমীর হোসেন তালুকদার, ঝালকাঠি:: ঝালকাঠিতে সরকারী মহিলা কলেজের ¯œাতক ১ম বর্ষের ছাত্রী সুরাইয়া ইয়াছমিন ফরাজী গর্ণা (২০)কে গলাটিপে হত্যার পরে মুখে বিষ ঢেলে আত্মহত্যার প্রচারণা চালানোর কথা স্বীকার করেছে ঘাতক স্বামী মাইনুল ইসলাম হিমু আকন (২৫)। মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত থানা হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে স্ত্রীকে হত্যার কথা স্বীকার করে তার বাবার পরামর্শেই সে এই বিষপানের নাটক সাজিয়েছেন বলে তথ্য দিয়েছে ঘাতক হিমু। গত রবিবার গত ৩ ডিসেম্বর বেলা ১১ টার সময় কাটপ্িট্ট এলাকার গোলাম মোরশেদ জিলানি ওরফে মিলটন আকনের জেদ্দা সেমাই-মুড়ি কারখানায় এ ঘটনা ঘটেছে। নিহত সুরাইয়া ইয়াছমিন ফরাজী গর্ণা ঝালকাঠি শহরের উদ্বোধন মাধ্যমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন কাটপ্িট্ট এলাকার আছলাম ফরাজীর মেয়ে। অন্যদিকে ঘাতক ও গ্রেপ্তারকৃত স্বামী মাঈনুল ইসলাম হিমু আকন (২০) একই এলাকার মিল্টন আকনের প্রথম স্ত্রীর ছেলে।
    ঝালকাঠি থানার উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ সরোয়ার হোসেন জানান, রোববার সকালে গার্নাকে ফোন করে হিমু তার বাবার ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান ‘মুড়ি ও সেমাই তৈরির কারখানার’ ওপরে একটি কক্ষে আসতে বলেন। গার্না দুপুর ১২টার দিকে ওই কক্ষে আসেন। সেখানে ঠান্ডা মাথায় ঘাতক স্বামী হিমু গলাটিপে স্ত্রী গর্নাকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন। হত্যাকান্ড সম্পন্ন হওয়ার পর হিমু পুরো ঘটনা তার বাবা মিল্টন আকন কে জানায়। বাবা মিল্টনের পরামর্শেই ছেলে হিমু আকন মৃত স্ত্রী গার্নার মুখে বিষ ঢেলে আত্মহত্যার বুদ্ধি দেয়। এমনকি তিনি ছেলেকেও নিজের মুখে বিষ ঢেলে সহমৃত্যুর নাটক করার পরামর্শ দেন বলে হিমু পুলিশকে জানায়। এ ঘটনায় নিহত সুমাইয়ার বাবা আসলাম ফরাজী বাদী হয়ে সোমবার ঝালকাঠি থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় স্বামী মাইনুল ইসলাম হিমু আকন (২৫), শ্বশুর মিল্টন আকন (৫০), শাশুরি আয়শা বেগম (৪২) ও মুড়ির মিলের ম্যানেজার মো. মাহফুজকে আসামি করা হয়।
    আছলাম ফরাজী’র দায়েরকৃত এজাহার জানা গেছে, বিগত দুই বছর আগে একই এলাকার মিল্টন আকনের পুত্র মাঈনুল ইসলাম হিমু আকন ফুসলিয়ে সুরাইয়া ইয়াছমিন গর্ণাকে গোপনে বিয়ে করে। তখন তা দের পিতা-মাতা কারোর বিবাহ মেনে না নেওয়ায় তারা বিভিন্ন স্থানে বসবাস করে আসছে। গত তিন মাস আগে থেকে নিহত সুরাইয়া ইয়াছমিন ফরাজী গর্ণা তার পিতা আছলাম ফরাজীর নিজ বসত ঘরে থাকলে হিমুও প্রায়শই শ্বশুরের বাসায় এসে বসবাস করতো।
    কিছুদিন পুর্বে মাঈনুল ইসলাম হিমু, তার পিতা মিল্টন ও মাতা আয়েশা বেগম পরিকল্পিত ভাবে গর্ণার পরিবারের নিকট ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে। তাদের দাবীকৃত সেই যৌতুকের টাকা নিহত গর্ণার অভিভাবকরা না দেওয়ায় আক্রোশ মূলক ভাবে হিমু আকন তার কলেজ পড়ুয়া মেয়ে গর্ণাকে মোবাইলের মাধ্যমে কলেজে যাওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে কাটপ্িট্ট রোডে তার পিতা মিলটন আকনের জেদ্দা সেমাই-মুড়ি কারখানার ভিতরে নিয়ে গলা টিপে হত্যা করে। পরে তার মুখে তুতে ঢেলে দিয়ে আত্মহত্যা বলে প্রচার চালায় এবং নিজেও কিছুটা তুতে খেয়ে আত্মহত্যার নাটক করে বলে অভিযোগ করেন। ঝালকাঠি থানা পুলিশ অভিযোগ পাওয়ার পর রাতেই বরিশাল শেবাচিম কলেজ হাসপাতাল থেকে সুস্থ অবস্থায় প্রধান অভিযুক্ত মাঈনুল ইসলাম হিমুকে আটক করে।
    আর মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই সরোয়ার জানান, মামলাটি যেহেতু তদন্তাধীন তাই বিস্তারিত বলা যাবে না তবে প্রধান অভিযুক্ত হিমুকে আটক করা হয়েছে বাকি আসামীদের গ্রেপ্তারে জোড় প্রচেষ্টা অব্যহত রয়েছে।
    অন্যদিকে নিহত সুরাইয়া গর্ণার মামা রাজু জানান, ৩ ডিসেম্বর কাটপট্টি বাকলাই ফাড়ির বাসিন্দা অভি কর্মকার তাকে জানায়, হিমু আকন ও গর্ণা বিষ খেয়েছে মর্মে তাকে মোবাইলে এসএমএস দেয়া হয়েছে তখন অভির কথা অনুযায়ী সুরাইয়া গর্ণার মামা রাজু ও অভি সেমাই কারখানার ভিতর গিয়ে হিমুকে অচেতন আর সুরাইয়া গর্ণার নিথর দেহ ঘার ভাঙ্গা অবস্থায় দেখতে পেয়ে দ্রুত সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।
    তবে আটকের পর মাঈনুল ইসলাম হিমু সাংবাদিকদের কাছে জানিয়েছিল, তার পিতা গোলাম মোরশেদ জিলানি ওরফে মিলটন আকন ঝালকাঠি পৌর আওয়ামী লীগের ৮ নং ওয়ার্ডের সাধারন সম্পাদক ও চেম্বার অব কমার্সের সাবেক পরিচালক হওয়ায় তাকে হয়রানী ও সামাজিকভাবে হেয় করার লক্ষে এ মামলা করানো হয়েছে।

    Print Friendly, PDF & Email