Recent Comments

    ব্রেকিং নিউজ

    বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় জাতি স্মরণ করেছে মহান ভাষা শহীদদের || জিয়া পরিবারকে নিয়ে মিথ্যা তথ্য প্রকাশে তৎপর এক শ্রেণীর হলুদ পত্রিকা ও সাংবাদিকেরা : রুহুল কবির রিজভী || চাঁদপুরে বিএনপির দুই শীর্ষ নেতাসহ আটক ৭ || রাজনৈতিক অধিকার অর্জনের মধ্যদিয়েই আমরা অর্থনৈতিক মুক্তি অর্জন করতে পারি: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা || একটি গণতন্ত্রহীন দেশের প্রধানমন্ত্রীর ভাষা, নির্দয় একনায়কতন্ত্রের ভাষা:রুহুল কবির রিজভী || খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মামলা ও রায় সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত:সৌদিআরব বিএনপির সভাপতি আহমদ আলী মুকিব || অবিলম্বে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিন : লুই মার্সেল || সাহস থাকলে নিরপেক্ষ-নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন দিন:হাসিনাকে উদ্দেশ্য করে নজরুল ইসলাম খান || বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এর নিন্দা ও প্রতিবাদ || বিভিন্ন অসঙ্গতি তুলে ধরে খালেদা জিয়ার রায়ের বিরুদ্ধে ২৫ যুক্তিতে আপিল করেছেন আইনজীবীরা ||

    নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন না দিলে জনগণ রাস্তায় নেমে ভোটাধিকার আদায় করবে

    January 22, 2018

    pnbd24:-সংবিধান সংশোধন করে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন না দিয়ে জনগণ রাস্তায় নেমে ভোটাধিকার আদায় করবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। সরকারের উদ্দেশে তিনি বলেছেন, সংবিধান সংশোধন করে নির্বাচন দেন, জনগণ ঠিক করবে তারা কাকে পছন্দ ও নির্বাচিত করবে। এখনো সময় আছে সংবিধান সংশোধন করার। নইলে জনগণ রাস্তায় নেমে তাদের ভোটের অধিকার আদায় করবে। খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে বিএনপি জনগণের সে আন্দোলনে পাশে থাকবে। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ৮২তম জন্মদিন উপলক্ষে জাতীয় প্রেস ক্লাবে ‘জিয়াউর রহমান বীর উত্তম এর আবির্ভাব, বাংলাদেশের অভ্যুদয় ও জনগণের জন্য আশীর্বাদ’ এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

    বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দল এ আলোচনা সভার আয়োজন করে। ড. মোশাররফ বলেন, রাজনীতির যে অস্থিতিশীল অবস্থা, সমাজিক অস্থিরতা, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, মানুষের জীবনের নিরাপত্তাসহ চলমান সংকটের সমাধান করতে  জনগণের সরকার প্রয়োজন। জনগণের সরকার আনতে হলে নিরপেক্ষ সরকার প্রয়োজন। আমি প্রত্যাশা করি সরকার এ কথা উপলব্ধি করবেন। তিনি বলেন, বর্তমান সংবিধানে নির্বাচনকালীন সরকারের কোনো অস্তিত্ব নেই। যদি নির্বাচনকালীন সরকারের কথা প্রধানমন্ত্রী মেনেই থাকেন তাহলে আপনার সংসদ আছে, টু-থার্ড মেজরিটি আছে। সেই সংসদে সংবিধান সংশোধন করেন। সেখানে নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারে ব্যবস্থা কায়েম করেন। ড. মোশাররফ বলেন, আজকে যদি আমরা গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে চাই, জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে চাই তাহলে নিরপেক্ষ নির্বাচন দরকার। নির্বাচনের মাধ্যমেই এ দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব। সে নির্বাচন হতে হবে অবশ্যই নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে। এ সরকারের নাম যাই হোক, চরিত্র হবে নিরপেক্ষ। নির্বাচনকালীন তাদের কোনো পক্ষপাতিত্ব থাকবে না। আমাদের নেত্রী সে নিরপেক্ষ সরকারের একটি রূপরেখা দেবেন। সেই রূপরেখা নিয়ে আমরা জনগণের কাছে যাবো। তার স্বপক্ষে জনমত সৃষ্টির জন্য কর্মসূচি দেব। আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ইশতিয়াক আজিজ উলফাতের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, মুক্তিযোদ্ধা দলের সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খান ও সিনিয়র সহ-সভাপতি আবুল হোসেন বক্তব্য দেন।

    Print Friendly, PDF & Email